আমেরিকাতে স্টুডেন্ট হেলথ ইনস্যুরেন্স এর ব্যাপারে প্রায় সবকিছু

যুক্তরাষ্ট্রে পড়তে চলে এসেছেন আপনি। এখানে আপনাকে কিছু কিছু কাজ করতেই হবে। তার মধ্যে একটা হচ্ছে স্বাস্থ্য বীমা করানো বা হেলথ ইনস্যুরেন্স নেয়া। বাংলাদেশে বলতে গেলে আমাদের প্রায় কারোই স্বাস্থ্য বীমা করানো থাকে না। কিন্তু সেটা আমেরিকার ক্ষেত্রে সেটা ভিন্ন।

কেন হেলথ ইনস্যুরেন্স নিতে হবে?

একদম সহজ কথা, আমেরিকাতে কোনো অসুখ বাঁধালে আপনি খরচ কুলোতে পারবেন না। তখন এটা অনেক বেশি কাজে দেবে। প্রত্যেক মাসে একটা নির্দিষ্ট টাকা বীমা হিসেবে জমা দেয়ার সুবাদে আপনি প্রয়োজনের সময় উপযুক্ত চিকিৎসা পাবেন। যে চিকিৎসার প্রকৃত খরচ হয়তো আপনার সাধ্যের বাইরে।
একটা তুলনামূলক উদাহরণ দেই। বাংলাদেশে যে অপারেশন করাতে ১০ হাজার টাকা লাগে, আমেরিকাতে একই অপারেশন করাতে লাগে বাংলাদেশি মুদ্রায় ৮ লক্ষ টাকা। তো, বুঝতেই পারছেন? আপনার ইনস্যুরেন্স যদি থাকে, ওরা এই খরচটা বহন করবে। এটা যদি যথেষ্ট কারণ না হয়, তাহলে আসলটা বলি। ভার্সিটি থেকে আপনাকে এটা বাধ্যতামূলকভাবে নিতে বলবে। নইলে ওদের চাকুরি করতে দেবে না। এসিস্ট্যান্টশিপ যে চাকরি, তা তো এতোদিনে জেনেই গেছেন।

তাহলে প্রথমেই কী কী করতে হবে?

সবার আগে আপনাকে আপনার ডিপার্টমেন্টের ইন্টারন্যাশনাল কলিগদের সাথে কথা বলতে হবে। দেখতে হবে, ওরা কে কী করছে। ওরা এই ব্যাপারে সব জানে। বিশেষ করে এই দুটো তথ্য জানে যে,
১) আপনার ভার্সিটিই হেলথ ইন্স্যুরেন্স সাপোর্ট দেয় কিনা।
২) কোনো কোন হেলথ ইনস্যুরেন্স পলিসি আপনার ইউনিভার্সিটি এক্সেপ্ট করবে।

অনেক ভার্সিটি আপনাকে হেলথ ইনস্যুরেন্স সাপোর্ট দেবে। কিন্তু মাঝে মাঝেই সেটা এতো বেশি হয় যে, ভার্সিটির বাইরে থেকে নেয়াই ভালো। বিশেষ করে, আপনার বয়স যদি ৩০ এর চেয়ে কম হয়, তাহলে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেখা যায় যে, বাইরের হেলথ ইনস্যুরেন্স ভার্সিটির চেয়ে অনেক কম হয়। তাই, ডিপার্টমেন্টে যারা বেশি সময় ধরে আছে, ওদের সাথে কথা বলুন।

International Student Insurance Company

এই নামে একটা ইনস্যুরেন্স কোম্পানি আছে, এরা শুধু ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টদের হেলথ ও লাইফ ইনস্যুরেন্স নিয়ে কাজ করে। ওদের ওয়েবসাইটে গেলে ওরা আপনাকে কিছু প্রশ্ন জিজ্ঞেস করবে, এরপর আপনার জন্য কী কী অপশন আছে, তা দেখাবে। আপনি সেখান থেকে সিলেক্ট করে নিতে পারেন। বেশির ভাগ স্টুডেন্টই Compass Silver অপশনটা ব্যবহার করে। মোটামুটি সাধারণ রোগগুলোর খরচ বহন করে এই অপশনটা। এমন আরো অনেক কোম্পানি আছে।

আমেরিকার সরকারের Medicare অপশনটা নিয়ে ডিটেইলস লেখার ইচ্ছে রইলো ভবিষ্যতে।

Advertisements
This entry was posted in Uncategorized. Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s